দেশ বিদেশ

আদানির কয়লা প্রজেক্টের বিরোধীতায় সিডনির দুই যুবক অস্ট্রেলিয়ার মাঠে নামলেন।


চিন্তন নিউজ, কল্পনা গুপ্ত, ২৮ শে নভেম্বর – ইন্ডিয়া – অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ম্যাচের শুরুতে ‘স্টপ আদানি’র দুইজন সদস্য ছুটে মাঠে ঢোকেন বিশ্বকে সতর্ক করে দেওয়ার উদ্দেশ্যে, তারা হাতে একটা পোস্টার নিয়ে জানাতে চান ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্কের পরিকল্পনা। ১৭ ই নভেম্বর স্টেট ব্যাঙ্কে ৫০০০ কোটি টাকা লোন অফার করেছে আদানির অস্ট্রেলিয়ার কোল প্রজেক্টে। ৮৯ টি মেজর কোম্পানি বাতিল করেছে আদানির এই কোল প্রজেক্টে থাকার বিষয়ে। এছাড়াও বিশ্বের উল্লেখযোগ্য ও নামী ব্যাঙ্ক ও বীমা নিগমও সরে এসেছে এই ঝুঁকিপূর্ণ ও বিতর্কিত প্রজেক্টের ব্যাপার থেকে।

ক্রিকেট ম্যাচের শুরুতে বেন এবং যশ ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্কের পরিকল্পনার বিরোধিতা করে মাঠে নামে। আদানির কয়লা খনির খনন এবং রেলপথ তৈরির মধ্য দিয়ে গ্যালিলি বেসিনকে উন্মুক্ত করবে, প্রাকৃতিক পরিবেশে আরো দূষণ ছড়াবে, খরা, দাবানল, তাপপ্রবাহ ইত্যাদি আরো বেশি করে অস্ট্রেলিয়ার পরিবেশের অবনতি ঘটাবে। সিডনির বাসিন্দা বেন কার্ডেটের বক্তব্য ভারতের লক্ষ লক্ষ করদাতারা যারা প্রথম ভারতের ক্রিকেট ট্যুরের খেলা দেখছেন তাদের জানা প্রয়োজন যে যখন সারা ভারতে কোভিদ ১৯ অতিমারি মোকাবিলায় বিদ্ধস্ত, সেই সময় ভারতীয় স্টেট ব্যাংক তাদের প্রদেয় করের টাকা ( ৫০০০ কোটি) আদানিকে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার পরিবেশ ও জলবায়ু দূষণকারী কয়লা খনি প্রকল্পের জন্য। এই ব্যাপারে আদানি- নরেন্দ্র মোদির সম্মিলিত পদক্ষেপের বিরোধিতা ও ভারতীয় করদাতাদের সজাগ করার জন্য তিনি একাজ করেন।

বিগত গ্রীষ্মেই দীর্ঘ সময় ধরে অস্ট্রেলিয়ায় দাবানল, তাপপ্রবাহ ইত্যাদিতে বহু বাড়ি পুড়ে গেছে ও জলবায়ুতে এক ক্ষতিকারক প্রভাব সৃষ্টি হচ্ছে। এই অবস্থায় আদানির কোল প্রজেক্ট‌ জ্বালানির দাহের এক নেতিবাচক প্রভাব অস্ট্রেলিয়া – ভারতে পড়বে। শুধু তাই না, আদানির প্রস্তাবিত কয়লা খনি হতে চলেছে পৃথিবীর সবচেয়ে নতুন বৃহত্তম কয়লা খনি। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বিশ্বের জলবায়ুতে।

সিডনির এক বিখ্যাত মিউজিসিয়ান জোস ওয়াইস্টনও বলেন আদানির এই কোল প্রজেক্ট হবে এক পরিবেশ বিঘ্নকারী, পরিবেশ নিয়মভঙ্গকারী পরিকল্পনা। ভারতীয় স্টেট ব্যাংকের উচিৎ বাকি ৮৯ টি কোম্পানির সাথে যুক্ত হয়ে আদানির পরিকল্পনা প্রতিহত করা।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।