রাজ্য

স্কুলের শিরিষ গাছ হঠাৎ কি করে শুকিয়ে মারা গেল প্রশ্ন স্কুলের শিক্ষকদের


সুপর্ণা রায়:চিন্তন নিউজ: ২৭শে জুন:– — বর্ধমান পুর বিদ্যালয় অনেকখানি জায়গা নিয়ে তৈরী এবং বহু পুরনো একটি বিদ্যালয়।।বিদ্যালয় টি ঘিরে রয়েছে অজস্র দামী দামী গাছ।। এগুলো র মধ্যে রয়েছে অনেক বড় ও বহু পুরনো গাছ।।তার ই মধ্যে বহু পুরনো একটি শিরিষ গাছ হঠাৎ কয়েকদিনের মধ্যেই শুকিয়ে মারা গেছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই বিদ্যালয়ের প্রাথমিক বিভাগের প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎ পাল। তাঁর অভিযোগ কারোও স্বার্থসিদ্ধি করতেই গাছটিকে বিষ প্রয়োগ করে মেরে ফেলা হয়েছে। বহু বছর এর পুরনো শিরিষ গাছ হঠাৎ করে শুকিয়ে যাওয়া র কোন কারণ নেই এবং এটা নিয়ে সরব হয়েছেন বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক এবং তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ।। তাঁর ও মত কোন দূর্নীতি গ্রস্থ মানুষ নিজের লাভের জন্য পরিকল্পিতভাবে গাছ টিকে মেরে ফেলছে।। প্রাথমিক বিভাগের প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎ পাল জানিয়েছেন যে যদি চারাগাছ হতো তবে বর্ষার প্রথম বৃষ্টি তে মারা যেতে পারে।। তিনি বলেন একটা তরতাজা গাছ কখনো এভাবে শুকিয়ে মারা যায় না।। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও প্রাথমিক বিভাগের প্রধান শিক্ষক কে এই তৎপরতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন বর্ধমান জেলার বাসিন্দা রা।।

তবে এটাই প্রথম নয়, বর্ধমান জেলার অনেক তরতাজা গাছ এভাবেই শুকিয়ে মারা যাচ্ছে বলে অভিযোগ বাসিন্দাদের।। তাঁদের ধারণা এই গাছ মরে যাওয়ার মধ্যে এক বিরাট বদ চক্র কাজ করছে।। পরিবেশ প্রেমীদের ধারণা কেউ বা কারা বিষ প্রয়োগ করে মেরে ফেলছে গাছগুলো কে।। তবে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের এক অধ্যাপক জানিয়েছেন যে একপ্রকার ছত্রাকের আক্রমণে গাছগুলো মারা যাচ্ছে।। তবে স্কুলের শিরিষ গাছ হঠাৎ কি করে শুকিয়ে মারা গেল তা অনুসন্ধান করে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন বর্ধমান জেলার পুলিশ।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।