রাজনৈতিক রাজ্য

সাংবাদিক সম্মেলন করে সাংবিধানিক গন্ডীর সীমা ছাড়াচ্ছেন রাজ‍্যপাল ; তীব্র আক্রমণ সুজন চক্রবর্তীর।।


চৈতালি নন্দী: চিন্তন নিউজ:৩রা নভেম্বর:– বিভিন্ন সময়ে সাংবিধানিক গন্ডীর বাইরে বেরিয়ে কাজ করছেন রাজ‍্যপাল জগদীপ ধনকর। বারে বারে ঘুরে ঘুরে সাংবাদিক সম্মেলন করে সাংবিধানিক ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন তিনি, এটা রাজ‍্যপালের কাজের এক্তিয়ারের মধ‍্যে পরে না, বললেন বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী। আজ বারাসতে বাজার পরিদর্শনে এসে এভাবেই রাজ‍্যপালকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন সুজন চক্রবর্তী।

সাংবিধানিক ক্ষমতার বলে রাজ‍্যে ক্ষমতার শীর্ষে থাকা রাজ‍্যপালের ক্ষমতা এদেশে সীমাবদ্ধ। প্রকৃতপক্ষে রাজ‍্যপাল পদটির কোনো প্রয়োজনীয়তা আছে বলেই মনে করেন না বামেরা। শুধুমাত্র রাজ‍্যের আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি দিল্লিতে জানানোই রাজ‍্যপালের একমাত্র কাজ। একদা যারা রাজ‍্যপাল গোপাল কৃষ্ণ গান্ধীকে রাজনীতির ক্রীড়ণকে পরিনত করে ধর্না মঞ্চে সামিল করেছিল, তারাই আজ রাজ‍্যের রাজনীতির মসনদে। রাজ‍্যপাল পদটিকে রাজনৈতিক বোড়ে হিসেবে ব‍্যবহারের নিন্দা করেন তিনি।

অন‍্যদিকে রাজ‍্যপালের সাম্প্রতিক উত্তরবঙ্গ সফরকে কটাক্ষ করে সুজন চক্রবর্তী বলেন, রাজ‍্যপাল সেখানে যেতেই পারেন ভ্রমণার্থী হিসেবে, তবে রাজনীতিবিদ হিসেবে নয়। রাজ‍্যপালের এই প্রবণতা অনৈতিক বলে মনে করেন তিনি। রাজ‍্যে তৃনমূলের মদতেই শক্ত হচ্ছে বিজেপির হাত। একদিকে বিজেপি নারদা সারদার জুজু দেখিয়ে তৃণমূলের উপর নিয়ন্ত্রণ কায়েম রাখছে, অন‍্যদিকে তৃনমূল পরোক্ষে বিজেপিকে সাহায্য করতে দায়বদ্ধ। কারণ তদন্ত হলে তৃনমূল দলটাই উঠে যাবে।তৃনমূল বিজেপির এই পরস্পর নির্ভরশীলতা ও অনৈতিক বোঝাপড়ার বিরুদ্ধে জোর লড়াই চালাতেই বিকল্প শক্তি হিসেবে উঠে আসছে বাম গণতান্ত্রিক জোট, যারা অচিরেই হয়ে উঠবে এরাজ‍্যের চালিকাশক্তি।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।