রাজ্য

অতিমারীতে মানবিকতার সংকটের ভয়াবহ রূপ


সূপর্ণা রায়: চিন্তন নিউজ:৮ই সেপ্টেম্বর,২০২০:- মানবিকতার সংকটা দেখা দিয়েছে, তার শিকার এক বিমান সেবিকা। হাওড়ার শিবপুরের নীলরতন মুখোপাধ্যায় লেনের বাসিন্দা বেসরকারি বিমান সংস্থাতে কর্মরত সুদীপা অধিকারী পড়েছেন এক মহা সমস্যাতে। তিনি যেহেতু বিমান সংস্থাতে কাজ করেন সেহেতু তাঁর অনেক বাইরের যাত্রী এবং আরও অনেকের সাথে মিশতে হয়। এখানেই বেঁধেছে গোলমাল।তাঁর পাড়ার অধিবাসীদের একাংশের ধারনা যেহেতু সুদীপা অধিকারী কাজের সুত্রে বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াত তাই তিনি কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন। আর আগুপিছু কিছু না ভেবেই তাঁর বাড়ীতে বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন প্রতিবেশীদের ওই একাংশ। অথচ তিনি যে কোভিড আক্রান্ত এমন কোন প্রমাণ ওই বিক্ষুব্ধ কারীরা পাননি। স্রেফ অজ্ঞতা এবং সচেতনতার অভাবে এই কাজ করেছে ওই অঞ্চলের কিছু মানুষ।

এর আগেও কলকাতা শহরে এমন ঘটনা ঘটেছে । এরকম করেই এক বৃদ্ধার বাড়ীতে তালা লাগিয়ে দিয়েছিলেন প্রতিবেশী এক যুবক। এক সন্তানসম্ভবা মাকেও সিঁড়ি দিয়ে ঠেলে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন আরও এক প্রতিবেশী। বারবার এমন ঘটনা মানুষকে তাদের মানবিকতা নিয়ে প্রশ্নের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। কেন এত অসহিষ্ণু হয়ে পড়েছে মানুষ সেই প্রশ্ন ও উঠে আসছে। কোভিড খুবই মারাত্মক ভাইরাস এবং তার ভ্যাকসিন এখনো পর্যন্ত বাজারে আসেনি এটা ঠিক, কিন্তু চিকিৎসকরা আপ্রাণ চেষ্টা করে বহু মানুষকে জীবনের মুল স্রোতে ফিরিয়ে দিচ্ছেন। তালা লাগিয়ে দেওয়া তো কোন রোগকে আটকে দেওয়ার কোন পন্থা হতেই পারে না। অজ্ঞতার কারণে একাংশ মানুষ এটা করে নিজেদের বিপদ নিজেরাই ডেকে আনছে। সুদীপা অধিকারী বারবার জানিয়েছেন যে তিনি সবরকম সতর্কতা অবলম্বন করেই তাঁর ডিউটি করেন। তবু তাঁকে হেনস্থা করতে ছাড়েননি ওই প্রতিবেশীরা। একরকম গৃহবন্দী অবস্থায় থাকতে হচ্ছে তাঁর পরিবারকে গত বৃহস্পতিবার থেকে।। সুদীপা দেবী আরও জানিয়েছেন যে তিনি অফিস থেকে ফেরার পথে রাস্তার কুকুরদের বিস্কুট খাওয়াচ্ছিলেন। তখন তাঁকে চুড়ান্ত ভাবে হেনস্থা করা হয়। তাঁর গায়ে পর্যন্ত হাত তোলে ওই বিক্ষুব্ধকারীরা। তাঁর বাবা মাকে দোকান বাজার যেতে দেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন সুদীপা অধিকারী।

সব জানিয়ে তিনি পুলিশকে মেইল করে সব ঘটনার কথা জানান। পুলিশ তদন্ত করে দেখছে বলে খবর। সুদীপা অধিকারী জানিয়েছেন যে তাঁকে অফিস যেতে বাঁধা দেওয়া হচ্ছে। প্রতিবেশীদের একাংশ এর ধারনা তিনি প্রকাশ্যে ঘুরলে এলাকায় করোনা ছড়িয়ে পড়বে। তাঁকে প্রকাশ্যে হুমকিও দেওয়া হয়েছে। ওই মহিলা কোভিড ক্যারিয়ার বলে অযথা তাঁর উপর মানসিক চাপ সৃষ্টি করে চলেছেন ওই প্রতিবেশীরা।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।