দেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ওপর ১৮ শতাংশ জি এস টি চাপালো কেন্দ্র।


কল্পনা গুপ্ত, চিন্তন নিউজ:- অথরিটি ফর অ্যাডভান্স রুলিং বা এ এ আর জানিয়েছে অ্যালকোহল ভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ওপর ১৮ শতাংশ জিএসটি প্রয়োগ করা হবে। এর বিরুদ্ধে এ এ আরের দ্বারস্থ হয়েছিলো গোয়ার স্প্রিং ফিল্ড ইন্ডিয়া ডিস্টিলাইজার। এদের দাবী ছিলো, হ্যান্ড স্যানিটাইজার হলো স্বাস্থ্যব্যবস্থার সাথে জড়িত অত্যাবশকীয় পণ্য। তাই এর ওপর ১২ শতাংশ জি এস টি চাপানো হোক। কিন্তু তাদের আবেদন খারিজ হয়ে যায়।

এরপরে স্প্রিং ফিল্ড ইন্ডিয়া ডিস্টিলারিস এ এ আরের গোয়া ব্রাঞ্চের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলো। কারণ গ্রাহক বিষয়ক মন্ত্রক হ্যান্ড স্যানিটাইজারকে প্রয়োজনীয় পণ্য রূপেই শ্রেণীবদ্ধ করেছে। কতৃপক্ষ বলে, ” আবেদনকারীর দ্বারা উৎপাদিত হ্যান্ড স্যানিটাইজারগুলি অ্যালকোহল ভিত্তিক স্যানিটাইজারের বিভাগে পড়ে ও এইচ এস এনের ৩৮০৮ বিভাগের অধীনে যেখানে শ্রেণীবদ্ধ করা আছে জি এস টি হার ১৮ শতাংশ হবে।” জি এস টি আইনের ছাড়যোগ্য আলাদা তালিকা আছে। সেই তালিকায় অ্যালকোহল ভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজারের নাম নেই।

বর্তমানে করোনা আবহে সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ হলো যারা দিন আনে দিন খায়। অস্তিত্ব রক্ষার এক বিরাট লড়াই করে চলা এই মানুষগুলোর পক্ষে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা সম্ভব হয়ে উঠবে কিনা তা প্রশ্নের মুখে। মানুষের বাঁচার প্রাথমিক চাহিদাগুলির সাথে যুক্ত হয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। সরকার এর ওপর ১৮শতাংশ জিএসটি চাপালে বাজারে তা হয়ে যাবে অগ্নিমূল্য। তাই বাঁচার লড়াইয়ে আবার পিছিয়ে পড়বে সমাজের খেটে খাওয়া মানুষেরা, বঞ্চিত হবে সাধারণ স্বাস্থ্য পণ্য ব্যবহার থেকে। অবশ্যই এই সময়ে সরকারের এই অমানবিক সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার দাবি রাখে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।