দেশ

বেসরকারি হাতে কয়লাখনি তুলে দেবার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে দেশজুড়ে কয়লা শিল্পে ধর্মঘট।


মাধবী ঘোষ: চিন্তন নিউজ:২৮শে জুন’:-কয়লা সম্পদ নিলামে মানে দেশের সম্পদ নিলামে বিক্রি হয়ে যাওয়া। আত্মনির্ভরতা নাকি আত্মহত্যা? তবে কেন কয়লা ব্লক নিলামে? এইসব দাবি নিয়ে কয়লা শিল্পে ১০০ শতাংশ বিদেশি বিনিয়োগের কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আগামী ২, ৩, ৪ জুলাই (২০২০)সর্বভারতীয় ধর্মঘট ।

মহারত্ন কোম্পানি কোলইন্ডিয়া ২০১৯ -২০ সালে ৬০২ মিলিয়ন টন উৎপাদন করে বিক্রি করে ১ লাখ ৪৩ হাজার কোটি টাকা পেয়েছে। আর দেশে এই সময় কয়লা আমদানি হয়েছে ২৩৫ মিলিয়ন টন, তাতে দেশের বৈদেশিক মুদ্রা খরচ হয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা। বিশ্বে কয়লার উৎপাদন কমছে । ওইসব দেশের দেউলিয়া কয়লা তোলা কোম্পানি এবার ভারতের নতুন আইনে এ দেশে বাসা বাঁধবে।
মোদী সরকার ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে ‘কোল মাইনস স্পেশাল প্রভিশনস অ্যাক্ট ২০১৫’ এবং ‘মাইনস অ্যান্ড মিনারেল ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেশন অ্যাক্টস ১৯৫৭’—এই দুই আইনের উপর আরও একটি অর্ডিন্যান্স জারি করেছে। এই নিয়ে ওই দুই আইনের উপর ষষ্ঠবার অর্ডিন্যান্স জারি করা হয়েছে। এই নতুন অর্ডিন্যান্সের নাম দেওয়া হয়েছে ‘দি মিনারেল (অ্যামেন্ডমেন্ট) অর্ডিন্যান্স ২০২০’। আগামী ২-৪ জুলাই লকডাউন সত্বেও কয়লা শিল্প বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে ইউনিয়নগুলোর সম্মিলিত হরতাল ভারত তথা বিশ্বে সব থেকে সাহসী সিদ্ধান্ত ।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।