জেলা

বীরভূম জেলায় আত্মবলিদান দিবস পালন


রাহুল চ্যাটার্জি: চিন্তন নিউজ:১১ই আগস্ট:- এস‌এফ‌আই -ডিওয়াইএফ‌আই এর উদ্যোগে আজ গোটা বীরভূম জুড়ে পালিত হলো শহীদ ক্ষুদিরামের ১১৩তম আত্মবলিদান দিবস। ফাঁসি হওয়ার সময় ক্ষুদিরামের বয়স ছিল ১৮ বছর, ৭ মাস ১১ দিন, যা তাঁকে ভারতের কনিষ্ঠতম বিপ্লবী অভিধায় অভিষিক্ত করে। অত কম বয়সে অত্যাচারী ব্রিটিশ শাসক কিংসফোর্ডকে হত্যা করতে গিয়ে বীর ক্ষুদিরাম ধরা পড়েন ও বিচারে তার ফাঁসির সাজা ঘোষণা হয়। এদিন রামপুরহাটে শহীদ ক্ষুদিরাম বসুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করেন ছাত্র-যুব নেতা কর্মীরা। উপস্থিত ছিলেন ডিওয়াইএফ‌আই বীরভূম জেলা সভাপতি অমিতাভ সিং, যুব নেতা রানা লেট, বাবু বায়েন, সুশান্ত মন্ডল এবং ছাত্র নেতা তুষার মন্ডল, ইউসুফ আলী, প্রাক্তন যুব নেতা সঞ্জীব মল্লিক প্রমুখ।ফাঁসির সাজা হ’লেও তরুণ বিপ্লবী ফাঁসির মঞ্চে ওঠেন হাসিমুখে একেবারেই মৃত্যু ভয়ে বিচলিত না হয়ে। ক্ষুদিরামকে নিয়ে কাজী নজরুল ইসলাম কবিতা লিখেছিলেন এবং অনেক গানও তখন রচিত হয়েছিল। বাংলার প্রতিটি ঘরে ঘরে আজও জনপ্রিয় ‘একবার বিদায় দে মা ঘুরে আসি’। উল্লেখ্য তাঁর মৃত্যুর পর অত্যাচারী ব্রিটিশদের খুন করে দেশমাতৃকার লাঞ্ছনা ঘুচাতে তরুণরা উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন।

এদিন সিউড়ি, ইলামবাজারেও ডিওয়াইএফ‌আই এর উদ্যোগে পালিত হয় শহীদ ক্ষুদিরামের আত্মবলিদান দিবস।

এদিন বোলপুরেও সিপিআই(এম) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ট্রেড ইউনিয়নের নেতা, সদ্য প্রয়াত কমরেড শ্যামল চক্রবর্তীর স্মরণে এক মৌন মিছিল বোলপুর পরিক্রমা করলো। এই মিছিলে সি আই টি ইউ সহ বিভিন বাম ট্রেড ইউনিয়ন , বিভিন্ন গণসংগঠনের নেতা কর্মীরা হাজির ছিলেন ।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।