কলমের খোঁচা

বিশিষ্ট লোকসঙ্গীত শিল্পী প্রয়াত কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্যের জন্মদিনে শ্রদ্ধার্ঘ্য।


শাশ্বতী ঘোষাল:চিন্তন নিউজ:১১ই সেপ্টেম্বর:–
কালিকাপ্রসাদ মানে- সুর নির্ঝরিণী ।
কালিকাপ্রসাদ মানে -সুরপ্রবাহ।
কালিকাপ্রসাদ মানে সুরসমুদ্রে সিক্ত এক গভীর উপলব্ধি।


লোকসঙ্গীত শিল্পী কালিকা প্রসাদ তাঁর জীবদ্দশাতেই হয়ে উঠেছিলেন কিংবদন্তি এক শিল্পী। সাদাসিধে আটপৌরে এই মানুষটি হয়ে উঠেছিলেন সবার প্রিয়। অসমের শিলচরে আদ্যন্ত সঙ্গীতময় এক পরিবারে তাঁর জন্ম। পরিবারের আর পাঁচজনের মতই সঙ্গীতের প্রতি ছোটবেলা থেকেই তাঁর আগ্রহ দেখা যায়। বিভিন্ন ধরণের সঙ্গীত নিয়ে চলতে থাকে ধারাবাহিক চর্চা। শুরু হয় সঙ্গীত সংগ্রহের নেশা। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছুটে গেছেন সঙ্গীত সংগ্রহের জন্য।ছুটে গেছেন বাংলাদেশেও বাউল ফকিরের আখড়ায়।


কলাবিভাগে স্নাতক হওয়ার পর শিলচর থেকে কোলকাতায় এসে তুলনামূলক সাহিত্য নিয়ে স্নাতকোত্তরে ভর্তি হন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে। চলতে থাকে সঙ্গীত সাধনা, সঙ্গীত নিয়ে গবেষণা। হেমাঙ্গ বিশ্বাসের গান শুনে বড় হয়ে ওঠা কালিকাপ্রসাদের মন ছুটতো টুসু, ভাদু ভাওয়াইয়া আর ভাটিয়ালি সুরের উজান বাওয়া গান শুনতে শুনতে। এক সময় অনুভব করেন জোট বাঁধতে হবে। সৃষ্টি হলো ‘দোহার’ সঙ্গীত দলটি। তাঁর সঙ্গীত মুখর জীবনে এ এক নতুন অধ্যায়।

অনবরত শিকড়ের সন্ধান করে গেছেন কালিকাপ্রসাদ। দুর্বার ছিল সে গতি। আপাত শান্ত ঐ মানুষটির অন্তরে ছিল চঞ্চলতা। সঙ্গীতের সন্ধানে তা গতিময় হয়ে উঠেছিল।
তিনি শাস্ত্রীয় সঙ্গীত ও চর্চা করেছিলেন। কিন্তু হৃদয় দিয়েছিলেন লোকসঙ্গীতকেই। তিনি হয়ে উঠেছিলেন মানুষের প্রাণের সঙ্গীত লোকসঙ্গীতের প্রবাদ পুরুষ বিশুদ্ধ সঙ্গীতের স্বপ্ন দ্রষ্টা, বাংলা লোকগীতির কিংবদন্তি পুরুষ, সবার অন্তরের মানুষ। তিনি বেশ কিছু বাংলা ছবির সঙ্গীত পরিচালনা করেছিলেন। দুই বাংলাতেই তাঁর অত্যন্ত জনপ্রিয়তা ছিল ।
তাঁর আকস্মিক প্রয়াণ বাংলা সঙ্গীত জগতের অপূরণীয় ক্ষতি সৃষ্টি করেছে। বিশেষ করে লোকসঙ্গীতের যে খোঁজ ছিল তাঁর জীবনের সাধনা ,যে গবেষণা তা স্তব্ধ হয়ে গেছে। এখনো সে শোক মানুষ কাটিয়ে উঠতে পারেনি।কালিকা প্রসাদ কখনো বিস্মৃত হতে পারেন না। তিনি লোকসঙ্গীতের মহীরূহ হয়ে চিরকাল তাঁর লোকগান গুলির মধ্য দিয়ে স্নিগ্ধ শীতলতা দানে জুড়িয়ে দেবেন আমাদের অন্তরের তীব্র দহন। কালিকাপ্রসাদের দোহার এগিয়ে চলুক স্বচ্ছন্দ গতিতে স্বকীয় পথে। এই প্রবাদ প্রতিম শিল্পীর প্রতি রইলো আন্তরিক শ্রদ্ধা ও প্রণাম।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।