জেলা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বেগমপুরে ত্রাণ বন্টন ও সচেতনতা কর্মসূচী



সন্দীপ সিনহা: চিন্তন নিউজ:২৪শে এপ্রিল:– করোনা ভাইরাসে কাবু যখন সারা বিশ্ব-এই দেশ, এই রাজ্যও, যখন এর থেকে নিস্তার পায়নি; তখন হুগলী জেলার চন্ডীতলা ২ নং ব্লকের অর্ন্তগত বেগমপুর গ্রামের মানুষের মধ্যেও আতঙ্কের ছায়া। একদিকে দীর্ঘ একমাসেরও বেশি সময় ধরে লকডাউনের কারণে এই গ্রামের অনেক সাধারণ দিন আনা দিন খাওয়া মানুষেরা বিপদে পড়েছে; পাশাপাশি বহু মানুষের মধ্যে সচেতনতার অভাব সামাজিক দিক থেকেও মানুষের নিরাপত্তার প্রশ্নে প্রশাসনকে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ করে রেখেছে।

এই অবস্থায় এই গ্রামের বিজ্ঞান সংগঠন পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের শাখা বেগমপুর সাইন্স সোসাইটির বেশ কিছু কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রামের সাধারণ, গরীব, খেটে খাওয়া প্রান্তিক মানুষের মধ্যে আশার আলো জাগিয়ে তুলেছে।
সাইন্স সোসাইটির সম্পাদক মাননীয় কুনাল লাহা জানিয়েছেন, ১৫ই এপ্রিল থেকে লকডাউন বাড়ানোর পর তাদের মনে হয়েছিল, এবার দুঃস্থ, খেটে খাওয়া, পরিযায়ী শ্রমিক পরিবার গুলির পয়সার ভান্ডারে টান পড়বে।

এমতাবস্থায় সোসাইটির পক্ষ থেকে আপাতত ৬০০ জনের খাদ্য সামগ্রীর আয়োজনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যতদিন না লকডাউন উঠছে এভাবেই তারা দুঃস্থ মানুষদের পাশে থাকবেন বলে জানান। সাইন্স সোসাইটির এই উদ্যোগ এলাকায় সাধারণ মানুষ, পঞ্চায়েত ও প্রশাসনের তরফ থেকেও সমর্থন পেয়েছে।

গত ২২/০৪/২০২০ তারিখে ৫০ জন মানুষকে ত্রাণ বন্টনের মধ্য দিয়ে তারা এই কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। সাইন্স সোসাইটির সভাপতি মাননীয় প্রসাদ লাহা জানান, ত্রাণের মধ্যে আলু, পিঁয়াজ, মুড়ি, মুসুর ডাল, মুগ ডাল, সোয়াবিন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, তেল, নুন ও সাবান রয়েছে।সামাজিক ভাবে মানুষকে নিরাপদ রাখার জন্য এরই মধ্যে সোসাইটির সদস্যরা একদিন সম্পূর্ণ নিজেদের উদ্যোগে বেগমপুর বাজার স্যানিটাইজ করেছে এবং পুলিশের অনুমতি নিয়ে তাদের সদস্যরা প্রতিদিন বেগমপুর বাজারে সামাজিক দূরত্ব বিধি, মাইকিং-করে প্রচার ও তা মেনে চলার জন্য নিরন্তর প্রয়াস চালাবে বলে বেগমপুর সাইন্স সোসাইটির মাননীয় সভাপতি ও সম্পাদক জানিয়েছেন।।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।