বিদেশ

হাঙ্গেরির সংবাদমাধ‍্যমে গণপদত‍্যাগ।।


চৈতালি নন্দী: চিন্তন নিউজ: ২৬শে জুলাই:- হাঙ্গেরির শীর্ষ অনলাইন নিউজপোর্টাল ‘ইনডেক্স’-এর সম্পাদককে সরকারের পক্ষ থেকে চাপে ফেলে বরখাস্ত করার প্রতিবাদে ঐ সংবাদ মাধ‍্যমের তিন জন সম্পাদক সহ ৭০জন সাংবাদিক গতপদত‍্যাগ করলেন। এই ইনডেক্স হাঙ্গেরির সবচেয়ে জনপ্রিয়, নির্ভিক ও স্বাধীন সংবাদ প্রকাশের জন‍্যে মানুষের বিশ্বাসযোগ‍্যতা অর্জন করেছে। সম্প্রতি ঐ সংবাদমাধ্যমটিতে ক্রমবর্ধমান ভাবে বাড়ছিল সরকারি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা। ইতিমধ‍্যে ইনডেক্সের সম্পাদক জাবক্স ডাল কে একটি সরকার বিরোধী সম্পাদকীয় লেখার দায়ে বরখাস্ত করা হয়। সম্পাদকীয়টির শিরোনাম ছিল ‘ইনডেক্স ইস ইন ডেনজার’। এর ফলে অচল হয় পড়ে জনপ্রিয় সংবাদপত্র ইনডেক্স। এই খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে বুদাপেস্তের রাস্তায় সংবাদমাধ‍্যমের কর্মীদের জমায়েত ও বিক্ষোভ শুরু হয় এবং তা এগোতে থাকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে।

গত একদশক ধরে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবানের নেতৃত্বে কট্টর জাতীয়তাবাদী ও রক্ষণশীল সরকারের বিরুদ্ধে সংবাদ মাধ‍্যমের কন্ঠরোধের অভিযোগ বার বার উঠছিল। গনমাধ‍্যমের কন্ঠরোধের ফলে হাঙ্গেরি ‘ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ইনডেক্সের ১৮০ টি দেশের মধ‍্যে ২৩ তম স্থান থেকে নেমে আসে ৮৯ তম স্থানে।
ইনডেক্স ওয়েবসাইট এর উপর সরকারি চাপ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে সাংবাদিকদের চাকরির ভবিষ্যৎ। প্রধানমন্ত্রী আরবানের এক ঘনিষ্ঠ ব‍্যবসায়ী ওয়েসাইটের অর্ধেক শেয়ার কিনে নেওয়ার ফলে এগুলির নিয়ন্ত্রণ চলে আসে সরকারের হাতে। সেগুলি সরকারের হয়ে অবাধে প্রচার করতে থাকে। ২০১৬ সালে সরাসরি একটি বামপন্থী সংবাদপত্রের প্রকাশনা বন্ধ করে দেওয়া হয়।
বিভিন্ন দেশেই গণতন্ত্রের মোড়কে রক্ষণশীল সরকার নিয়মিতভাবে গণমাধ‍্যমগুলির উপর সরাসরি হস্তক্ষেপ করে চলেছে, যা মানুষের বাক্ স্বাধীনতাকে খর্ব করছে। মানুষের স্বাধীন চিন্তাভাবনাকে সরকারের কুক্ষিগত করার হীন চক্রান্তে তৈরী হয়েছে অত‍্যন্ত আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।