জেলা রাজ্য

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ দূর্নীতি, একদিনে প্রাইমারি শিক্ষকের চাকরি পেয়েছেন এক‌ইপরিবারের পাঁচজন ,


দেবী দাস:চিন্তন নিউজ:৮ই জুলাই:- জানাচ্ছেন সাগর ব্লক অন্তর্গত রুদ্রনগর গ্রাম পঞ্চায়েতে কমলপুর গ্রামে একশ’ দশ নম্বর বুথে শতাধিক অতি দরিদ্র ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ক্ষতিপূরণ না পেলেও । পেয়েছেন ক্ষতিপূরণের কুড়ি হাজার টাকা জয়ন্তী দাস , প্রাক্তন প্রধান । স্বামী – প্রদীপ দাস , প্রাইমারি শিক্ষক , তৃণমুলের বুথ সভাপতি । প্রদীপবাবুর মা পেনশনভোগী , প্রদীপবাবুর ছেলে প্রাইমারি শিক্ষক ।

আমফান দূর্নীতির মতো প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ দূর্নীতিতেও একদিনে প্রাইমারি শিক্ষকের চাকরি পেয়েছেন প্রদীপবাবুর পরিবারের পাঁচজন । মা মাটি মানুষের সরকারে সরকারি প্রাপ্যতায় যোগ্য শুধুমাত্র এরাই ।
তবে এরা শুধু নিয়েছে বললে ভুল বলা হবে , এরা দিয়েছেও সম হারে । ২০১৮ র পঞ্চায়েত নির্বাচন ভোট , বুথে তৃণমূলের হার নিশ্চিত জনতার আগাম বার্তায় । সকাল সাতটা থেকে ভোট শুরু , পঞ্চায়েত সমিতিতে বাম সমর্থিত নির্দল প্রার্থী অশোক কুমার দাসের নেতৃত্বে বাম কর্মীরা বুথের ভেতর ও বাহিরে ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে লড়াই করে হাড়ে হাড়ে টক্কর দিচ্ছে । বিকেল পাঁচটার পর অন্য এক বুথে সমস্যার কারনে এই ১১০ নম্বর বুথটি থেকে অশোকবাবু বেরিয়ে যায় কিছু সময়ের জন্য । তখন স্লিপ হাতে লাইনে দু-শতকের থেকে কিছু সংখ্যক বেশি ভোটার । ততক্ষণে এই প্রদীপবাবুরা বুঝে যায় তৃণমূলের হার নিশ্চিত । শুরু হয়ে যায় গুন্ডামী । ভীত সন্ত্রস্ত কন্ঠে ফোন যায় অশোক বাবুর কাছে , তৎক্ষনাৎ ছুটে যায় ঘটনাস্থলে । প্রিজাইটিং অফিসার নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করেও প্রশাসনের দ্বায়িত্বে থাকা কলকাতা পুলিশের দুই হোমগাড়ের প্রাণ বাঁচানোর সক্রীতায় পিছু হটতে বাধ্য হয় । তাতেও তৃণমূল জয় নিশ্চিত করতে পারলোনা , শুরু করলো দেখিয়ে ভোটদানের প্রক্রিয়া। তাতেও নিশ্চিত জয়ের সন্দেহ কাটলোনা , অনুপস্থিতি ভোটারের সংখ্যা হিসেব করে প্রদীপ দাস , পিন্টু দাস , অসীম পালরা একস্ট্রা দশটি করে ভোট দেয় ।

তবে এক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী কে বিচক্ষণই বলতে হয় , তিনি এই সব শিক্ষকদের হাড়ে হাড়ে চিনেছেন । তাই তিনি প্রাকাশ্যে বলতে পেরেছিলেন এরা না পেলে ‘ ঘেউ ঘেউ মিউ মিউ ‘ করে ।

তখনো এই বক্তব্যকে ধিক্কার জানিয়েছে বামপন্থীরা , এখনো ধিক্কার জানায় বামপন্থীরা । সেই সঙ্গে ধিক্কার জানায় এমন শিক্ষকদের , যারা শিক্ষক শব্দকে অপমান করে , কলঙ্কিত করে । উপরের ছবিতে এই সেই , মাটি রক্ষায় মানুষ দরদী মায়ের শিক্ষক সন্তান প্রদীপ দাস

জ্যোতি বসুর স্মরণে এস‌এফ‌আই এর জ্যোতি বসু কিটস প্রদান

অপরদিকে সংবাদদাতা সৌভিক ব্যানার্জির রিপোর্ট:-মানুষের নেতা জ্যোতি বসুর স্মরণে দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের হাতে তুলে দেওয়া হলো জ্যোতি বসু কিট। আজ পশ্চিমবঙ্গের প্রথম কমিউনিস্ট মুখ্যমন্ত্রী তথা উপমহাদেশের অন্যতম বামপন্থী নেতা জ্যোতি বসুর ১০৭তম জন্মদিবস।সেই উপলক্ষে মৌলানা আজাদ কলেজের ছাত্রছাত্রীদের উদ্যোগে দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের হাতে পৌঁছে দেওয়া হলো ‘জ্যোতি বসু কিট'(শিক্ষা-খাদ্য-স্বাস্থ্য সামগ্রী) এবং মেয়েদের হাতে পৌঁছে দেওয়া হলো স্যানিটারি ন্যাপকিন!!জ্যোতি বসু কিটের সরঞ্জাম :-খাতা, পেন, পেন্সিল, রবার, পেন্সিল কলম ম্যাগি, বিস্কুট, মুড়ি, দুধ, চকোজ, হরলিক্স সাবান, মাস্ক.


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।