রাজ্য

রিগবোর নলকূপে জল না পেয়ে রাগে আস্ত নলকূপ উপরে ফেলে দিল হাতি।


দীপশুভ্র সান্যাল, চিন্তন নিউজ:- ৮ জুলাই:-
জঙ্গল সংলগ্ন সরকারি নলকূপে জল না পেয়ে নলকূপ উপড়ে ফেলে দিল হাতির দল। ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকাবাসীরা।
জঙ্গলে ক্রমে বাড়ছে জনবসতি অন্যদিকে,  বিশ্ব উষ্ণায়ন এবং জঙ্গলে অবৈজ্ঞানিকভাবে গাছপালা ধ্বংসের ফলে খাদ্যের অভাবে বন্যপ্রাণীদের  লোকালয়ে হানা নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে ডুয়ার্সের জঙ্গল সংলগ্ন গ্রামগুলোতে। জঙ্গলে দখলদারি থেকে শুরু করে গাছপালা নিধনের ফলে জঙ্গলে নিজেদের বাসস্থানেই নিজেদের অস্তিত্ব বজায় রাখতে বেগ পেতে হচ্ছে বন্যপ্রাণীদের। এবার তৃষ্ণা নিবারণের জন্য লোকালয়ে এসে জনবসতি এলাকায় বসানো রিগবোর নলকূপে জল না পেয়ে রাগে আস্ত নলকূপ উপরে ফেলে দিল হাতি। জলপাইগুড়ি জেলার মেটেলি ব্লকের লাটাগুড়ি জঙ্গল সংলগ্ন বড়দিঘি চা বাগান এলাকার ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে।
ঘটনায় হতবাক এলাকাবাসীরা। চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকাজুড়ে।এখানেই শেষ নয়, হাতির দল এলাকার বেশ কিছু কলা ও সুপারি গাছেরও ক্ষতি করে। জানা যায়, এলাকা সংলগ্ন লাটাগুড়ি জঙ্গল থেকে ৬ থেকে ৭ টি হাতির একটি দল চলে আসে বড়দিঘী চা বাগানে। বাগানের চম্পা লাইনে থাকা নলকূপে জল না পেয়ে তা উপড়ে ফেলে দেয় হাতি। স্থানীয় জনগণের চিৎকারে হাতি গুলো বাড়ি ঘরের কোনও ক্ষতি করতে না পারলেও এলাকার বহু গাছের ক্ষতি করে। সোমবার ভোররাত নাগাদ হাতিগুলো বড়দিঘী চা বাগান হয়ে ফের লাটাগুড়ি জঙ্গলে চলে যায়।

এ বিষয়ে এলাকার বাসিন্দা ভরত টোপ্পো বলেন, মাঝেমধ্যেই বাগানে হাতির দল ঢুকে তাণ্ডব চালায়। এদিনও এলাকার একটি রিগবোর নলকূপ  মাটি থেকে তুলে উপড়ে আছড়ে ফেলে দেয় এক দাতাল হাতি। এলাকায় হাতির হানা রুখতে রাতে বন কর্মীদের টহলদারী দাবি করেছেন গ্রামের বাসিন্দারা। বনদফতরের তরফে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি জঙ্গল লাগোয়া একটি রিসোর্ট এর ভেতরে ঢুকে হানা দেয় জংলি হাতির দল। এছাড়াও ইদানিং লোকালয়ে হাতির হানা বেড়ে যাওয়ায় আতঙ্কে দিন কাটাতে হচ্ছে ডুয়ার্সের জঙ্গল লাগোয়া গ্রামের বাসিন্দাদের।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।