রাজ্য

অবহেলিত নেলসন ম্যান্ডেলা উদ্যান–


সুপর্ণা রায়: চিন্তন নিউজ:২২শে জুলাই:– দক্ষিন আফ্রিকার বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের নেতা নেলসন ম্যান্ডেলা। দীর্ঘদিন শ্বেতাঙ্গ কারাগারে বন্দী জীবন কাটানোর পর যখন মুক্ত হলেন তার কয়েকমাস বাদেই তিনি কলকাতা সফরে আসেন। তখন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন কমরেড জ্যোতি বসু। তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর উদ্যোগে কলকাতা ইডেন গার্ডেন্স এ আয়োজিত হয় এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। নেলসন ম্যান্ডেলার প্রতি সম্মান জানিয়ে তখন কলকাতার মেয়ো রোড ও জহরলাল নেহরু রোডের সংযোগ স্থলে নির্মাণ করা হয় সাজানো গোছানো “নেলসন ম্যান্ডেলা উদ্যান”.. যা একটা সময় রীতিমতো দেখাশোনা ও পরিচর্যা করা হতো। ওই অঞ্চলের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় নজরে আসতো ধপধপে সাদা ফলক।

তারপর কেটে গেছে বহু বছর। কলকাতার অনেক পরিবর্তন হয়েছে আর তার সাথে পরিবর্তন ঘটেছে রাজ্যসরকারের। সবচেয়ে বেশী পরিবর্তন ঘটেছে “নেলসন ম্যান্ডেলা উদ্যান”এর। ওইরকম সাজানো গোছানো উদ্যান এখন কলকাতার মুক্ত ভ্যাটে পরিনত হয়েছে। সেই সাদা ফলকটিও উধাও হয়েছে।গত ১৮ ই জুলাই ছিল ম্যান্ডেলার জন্মদিন। আর এখন ঐ উদ্যান এর দশা দেখলে চমকে উঠতে হয়। চারিদিকে নোংরা আবর্জনার স্তূপ। বড়ো বড়ো ঘাসে , জংলি লতাপাতায় ভর্তি হয়ে আছে। শহরের নাগরিকরা যেভাবে পারছে বাড়ীর নোংরা আবর্জনা এখানে এনে ফেলে যাচ্ছে।

এমতাবস্থায় ভারতের শান্তি ও সংহতি রক্ষা কমিটি বাধ্য হয়ে কলকাতা পুরসভাকে এক চিঠি দেয় যাতে পরিষ্কার ভাষায় লেখা আছে এই উদ্যান এর দেখভাল যেন ভালোভাবে করা হয়। সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সৌমেন্দ্র নাথ বেরা জানিয়েছেন এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক ও দূর্ভাগ্যজনক। পুরো সভার কমিশনারকে এই বিষয়ে জানানোটাও অত্যন্ত দুঃখজনক। কারণ কলকাতার সব দর্শনীয় স্থান রক্ষা করা কলকাতা পুরসভার জরুরী কাজ। সেখানে আজ এত বছর পুরসভার দায়িত্বে থাকা তৃনমুল কংগ্রেস এই উদ্যানের সংস্কার করা হয়নি কেন সেটাই একটা বড়ো প্রশ্ন।

পুরসভাকে আরও জানান হয়েছে ভারতরত্ন ও নোবেল শান্তি পুরস্কার এ ভূষিত বিশ্ববন্দিত নেলসন ম্যান্ডেলার স্মৃতির প্রতি এই গভীর অশ্রদ্ধা ও অবমাননা কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে রাজ্য সরকার ও পুরসভা অবিলম্বে সংস্কার এর কাজে হাত দিক। নেলসন ম্যান্ডেলা উদ্যান এর প্রতি এই অবহেলা রাজ‌্যসরকার ও পুরসভার কাজকর্ম নিয়ে ভারত তো বটেই পুরো পৃথিবী র কাছে অত্যন্ত লজ্জাজনক।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।