জেলা রাজ্য

পেট্রোল জাত দ্রব‍্যের লাগাতার মূল‍্যবৃদ্ধি এবং কেন্দ্র ও রাজ‍্য সরকারের কৃষক শ্রমিক বিরোধী তথা দেশ বিরোধী নীতির প্রতিবাদে জেলা জুড়ে বাম সংগঠনগুলির প্রতিবাদ কর্মসূচী।


কিংশুক ভট্টাচার্য্য,বাঁকুড়া ২৬ জুন ২০২০:- শুক্রবার সারাদিন ধরে বাম শ্রমিক, কৃষক সংগঠনগুলি ও ছাত্র যুব মহিলা গণসংগঠনগুলি প্রতিবাদ কর্মসূচী পালন করে। কোথাও বিক্ষোভ সভা, কোথাও বা মিছিল পথসভা, গণ কনভেনশন, ব্লক ও বিদ‍্যুত দপ্তরে ডেপুটেশন ইত‍্যাদি বিভিন্ন কর্মসূচী র মধ‍্য দিয়ে জনগণের ক্ষোভকে তুলে ধরেন। একই সাথে এই আন্দোলনের একটা বিশেষ পর্যায়ে সারা দেশ জুড়ে আগামী শুক্রবার তেশরা জুলাই প্রতিবাদ দিবস কর্মসূচী র প্রচার করেন।

সকাল সাতটার সময় বাঁকুড়া শহরের স্টেশন সংলগ্ন গুডশেডের সামনে বাঁকুড়া জেলা লরী ড্রাইভার ও ক্লিনার্স ইউনিয়নের সদস‍্যরা ভারী সংখ‍্যায় সমবেত হয়ে একটি বিক্ষোভ সভা সংগঠিত করেন। সভায় ইউনিয়নের জেলা সম্পাদক সত‍্য মুখার্জি ও সিআইটিইউ জেলা নেতা প্রতীপ মুখার্জি উপস্থিত ছিলেন।

নেতৃদ্বয় পেট্রোল ডিজেলের ধারাবাহিক মূল‍্যবৃদ্ধি সহ কাজের সময় বৃদ্ধি শ্রম আইন বাতিল করা ও কৃষি বানিজ‍্য অর্ডিন‍্যান্সের বিরোধিতা করে ও আগামী তেশরা জুলাই শুক্রবারের সারা ভারত প্রতিবাদ দিবসের সমর্থনে ব‍্যাখ‍্যা করে বক্তৃতা করেন

প্রতীপ মুখার্জি তাঁর বক্তব‍্যে বলেন যে,”আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম যখন তলানিতে এসে ঠেকেছে তখন বিজেপি নেতৃত্বাধীন মোদী সরকার লাগাতার ভাবেই দাম বাড়িয়ে চলেছে পেট্রাপণ্যের। ৭ই জুন থেকেই পেট্রলের দাম বাড়ানো হয়েছে লিটার পিছু ৮ টাকা ৫০পয়সা আর ডিজেলের লিটার প্রতি ১০টাকা ২৫পয়সা – রাজধানী দিল্লিতে ডিজেলের দাম পেট্রলের দামকেও ছাপিয়ে গেছে”।২০১৮’র জানুয়ারিতে যেখানে দিল্লিতে ডিজেলের লিটার প্রতি দাম ছিল ৬১টাকা ৭৪পয়সা, দেড় বছরেই সেই দাম বাড়ানো হয়েছে লিটার প্রতি ১৮ টাকা।

তিনি আরও বলেন, “এভাবে লকডাউনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবহন শিল্পকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেওয়ার পাশাপাশি গণ-পরিবহন ব্যবস্থাকে বিপদগ্রস্ত করে চরম দুর্দশার দিকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে দেশের কোটি কোটি গরীব ও মধ্যবিত্ত মানুষদের। আর রাজ্য সরকারেরও ট্যাক্সের মাধ্যমে আয় বেড়ে চলায় এই প্রসঙ্গে মুখে কুলুপ এঁটে বসে রয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি তথা তার দল টিএমসি।

এর প্রতিবাদে ও পেট্রাপণ্যের ওপর থেকে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের ট্যাক্স প্রত্যাহারের দাবীর সমর্থনে বক্তব‍্য উপস্থাপন করেন সত‍্য মুখার্জি।অঙ্গীকার ঘোষিত হলো এই দাবী আদায়ে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার।

অনুরূপ একটি বিক্ষোভের কর্মসূচী আজ সকালে বাঁকুড়া বাস স্ট্যান্ড এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়। বাঁকুড়া জেলা বাস শ্রমিক ইউনিয়ন(CITU) ও বাঁকুড়া জেলা বাস শ্রমিক কংগ্রেসের(INTUC) উদ্যোগে এই কর্মসূচী পালন করা হয়। ওখানে এই কর্মসূচীতে নেতৃত্ব প্রদান করেন ও বক্তব্য রাখেন কিংকর পোষাক উজ্জ্বল সরকার(CITU), অভিষেক বিশ্বাস(INTUC) প্রমুখ।

আগামী তেশরা জুলাই শুক্রবার দেশ জুড়ে প্রতিবাদ দিবসের সমর্থনে বাঁকুড়ার এক নম্বর ব্লকের পুয়াবাগান ইন্জিনিয়ারিং কলেজে ট্রেড ইউনিয়ন এবং কৃষক- খেত মজুর সংগঠনের যৌথ কনভেনশন অনুষ্ঠিত হলো। এখানে কংগ্রেসের কৃষি মজুর সংগঠনের ১০ জন কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

মালিকদের স্বার্থে শ্রম আইনগুলির পরিবর্তন করা চলবে না, কোনোভাবেই কাজের ঘন্টা আট থেকে বাড়িয়ে বারো করা চলবে না, লকডাউনের সময়কালে শ্রমিকদের সম্পূর্ণ মজুরী প্রদান নিয়ে টালবাহানা চলবে না, পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ী ফিরিয়ে আনার এবং ফিরে আসা শ্রমিকদের থাকা,খাওয়া ও কাজের ব্যাবস্থা সরকারকেই করতে হবে, আয়কর না দেওয়া প্রতিটি পরিবারের একাউন্টে মাসে সাত হাজার পাঁচশত টাকা করে সরকারকে ট্রান্সফার করতে হবে, প্রতিটি গরীব মানুষকে রেশনের মাধ্যমে বিনামূল্যে আগামী ছমাস দশ কিলোগ্রাম করে খাদ্যশস্য দিতে হবে, এমএনআরইজিএ’ প্রকল্পে বছরে দুইশত দিন করে কাজ ও দৈনিক তিনশত টাকা করে মজুরী দিতে হবে, কৃষক স্বার্থ বিরোধী কৃষি অর্ডিন্যান্স অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে, কৃষকদের সার, বীজ, কীটনাশক ও ডিজেল মূল দামের পঞ্চাশ শতাংশ মূল্যে সরকারকে সরবরাহ করতে হবে,তিনমাস লকডাউন সময়কালে দুইশত ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুতের বিলের টাকা ও ছাত্র-ছাত্রীদের টিউশন ফি মকুব করতে হবে প্রভৃতি বারো দফা দাবীতে এই কনভেনশন অনুষ্ঠিত হয়।
ফটিক গোস্বামী,বাবলু ব্যানার্জী, অভিষেক বিশ্বাস,সরোজ ঘোষাল,দুঃখভঞ্জন মন্ডল ও শ্যামাপদ ডাঙ্গরকে নিয়ে গঠিত সভাপতিমন্ডলী এই কনভেনশন পরিচালনা করেন। মূল প্রস্তাব উত্থাপন করেন ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের নেতা বিনোদ বাস্কে। – প্রস্তাব সমর্থন করে বক্তব্য রাখেন প্রতীপ মুখার্জী(সিআইটিইউ) পীযূষ ব্যানার্জী(বারোই জুলাই কমিটি), অভিষেক বিশ্বাস(আইএনটিইউসি),বাবলু ব্যানার্জী (এআইসিসিটিইউ), শ্যামাপদ ডাঙ্গর(টিইউসিসি) ও ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের রাজ্য নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক মনোরঞ্জন পাত্র। কনভেনশন থেকে তেশরা জুলাই শুক্রবার এই দাবীগুলি নিয়ে দেশব্যাপী যে প্রতিবাদ দিবস পালনের ডাক দেওয়া হয়েছে তা সফল করে তোলার আহ্বান জানানো হয়।

কনভেনশন শেষে একটি দৃপ্ত মিছিল পুয়াবাগান পরিক্রমা করে বিডিও অফিসের সামনে এসে শেষ হয়। – মিছিল শেষে আগামীদিনের সংগ্রাম আন্দোলনকে সফল করে তোলার আহ্বান জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সিআইটিইউ রাজ‍্য নেতা কিংকর পোষাক।

কোতুলপুরে ছাত্র ফেডারেশনের উদ‍্যোগে ছাত্র ছাত্রীদের একটি দৃপ্ত মিছিল কোতুলপুর বাজার এলাকা ঘুরে বিদ‍্যুৎ দপ্তরের আধিকারিকের দপ্তরের সামনে সংক্ষিপ্ত সভা করে গণ স্বাক্ষরিত দাবীসনদ দপ্তরের আধিকারিকের হাতে তুলে দেন। হুশিয়ারি দিয়ে আসেন দাবীপত্র যথাযথভাবে বিবেচনা না হলে ভবিষ্যতে ছাত্র ছাত্রীরা আরও তীব্র আন্দোলনের পথে যেতে বাধ‍্য হবেন।

অপরদিকে কোতুলপুর বাজারে কৃষক ক্ষেতমজুর ও শ্রমিক সংগঠনগুলি র আহ্বানে ডিজেল-পেট্রল এর দাম প্রতিদিন ধারাবাহিকভাবে বেড়ে চলার বিরুদ্ধে মিছিল ও পথসভার মাধ্যমে বিক্ষোভ -প্রতিবাদ কর্মসূচি সংগঠিত হয় । কোতুলপুরের মির্জাপুরে বামুনাইরী মোড়ে পথসভার মধ‍্য দিয়ে কর্মসূচী শেষ হয়।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।