জেলা রাজ্য

মহ:বাজারে শহীদ সেনা জ‌ওয়ান রাজেশ ওঁরাওয়ের বাড়িতে শেষশ্রদ্ধায় উপস্থিত বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী


রাহুল চ্যাটার্জি: চিন্তন নিউজ:১৯শেষ জুন:–দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর মহ:বাজার এর বেলগড়িয়ায় আজ সকালে পৌঁছাল সীমান্তে শহীদ রাজেশ ওঁরাও এর নিথর দেহ। গতকাল কলকাতা পৌঁছানোর পর তার দেহ আনা হয় পানাগর আর্মি ক্যাম্পে। সেখান থেকেই আর্মির বিশেষ একটি দল আজ গ্রামের উদ্যেশ্যে রওনা হয় শহীদ জওয়ান এর দেহ নিয়ে। রাস্তার দুই পাশে অগনিত মানুষ শেষ শ্রদ্ধা জানাতে দাঁড়িয়ে ছিলেন। গ্রামে রাজেশ এর বাড়িতে সকলের জন্য শেষ শ্রদ্ধা জানাতে বিশেষ আয়োজন কাল থেকেই শুরু হয়েছিল। দুপুর ১২ টা নাগাদ সেখানে পৌঁছান কম: সুজন চক্রবর্তী ও বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান। শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় ও চন্দ্রনাথ সিনহা। এছাড়াও বীরভূম জেলার ডি.এম ও অন্যান্য বহু সমাজসেবী সংগঠন ও গ্রামের মানুষজন উপস্থিত ছিলেন। গান স্যালুট এর মাধ্যমে সম্মান জানানো হয় বীর সেনানীকে। তাকে সমাধিস্থ করা হয় নিজের গ্রামেই।

প্রসঙ্গত, গত ভারত চীন সীমান্তে সেনা সংঘর্ষে ভারতের পক্ষ থেকে শহীদের মৃত্যু বরণ করেন ২০ জন সেনা জওয়ান, যার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের দুই বীর। রাজেশ ওঁরাও ছাড়াও এই তালিকায় আরেক নাম বিপ্লব রাই, যিনি আলিপুরদুয়ার জেলার শামুকতলা থানার বিন্দিপাড়া গ্রামের ছেলে। তিনি ভারতীয় সেনা বাহিনীর হাবিলদার পদে লাদাখ সীমান্তে দায়িত্বনির্বাহ করছিলেন।

এদিন বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী ও বীরভূমের প্রাক্তন সংসদ রামচন্দ্র ডোমের উপস্থিতিতে সিপিআই(এম)র পক্ষ থেকে রাজেশ ওরাংয়ের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয় ১ লক্ষ টাকার চেক।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।