জেলা

জলপাইগুড়ি জেলা জুড়ে মর্যাদার সাথে পালিত হল আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস।


দীপশুভ্র সান্যাল: চিন্তন নিউজ:১লা মে :– জলপাইগুড়ি জেলা জুড়ে মর্যাদার সাথে পালিত হল আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস।
জেলার সি.আই.টি.ইউ.দপ্তর, জেলা সিপিআইএম দপ্তর, পার্টির বিভিন্ন এরিয়া দপ্তরসহ বিভিন্ন শাখা এলাকায় প্রাকৃতিক বিপর্যয় কে উপেক্ষা করে পালিত হল মে দিবস। জেলা সি.আই.টি.ইউ. দপ্তরে সি.আই.টি.ইউ.র রক্ত পতাকা উত্তোলন করেন জলপাইগুড়ি জেলার সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আলম, সিপিআইএম জেলা দপ্তরে পার্টির রক্ত পতাকা উত্তোলন করেন পার্টির জেলা সম্পাদক আচার্য।

এছাড়াও শহরের সদর পশ্চিম ও সদর পূর্ব দুটি এরিয়া দপ্তরে পার্টির রক্ত পতাকা উত্তোলিত হয়। সিপিআইএম জেলা দপ্তরে এ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন পার্টি রাজ্য কমিটির সদস্য জিয়াউল আলম, পার্টি সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য কৌশিক ভট্টাচার্য্য, জেলা নেতা বিপুল সান্যাল, তমাল চক্রবর্তী, পার্টি নেতা, প্রাক্তন যুব আন্দোলনের নেতৃত্ব ননীগোপাল মুখুটি সহ অন্যান্য গণ আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ। সি.আই.টি.ইউ. জেলা দপ্তরে সি.আই.টি.ইউ.র সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আলম তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন করনা অতিমারির সময় মানুষের পাশে দাঁড়ানো আজকের শ্রমিক আন্দোলনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কর্তব্য রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকার যেখানে অতিমারি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ ভ্যাকসিন অক্সিজেনের হাহাকার সেখানে সিআইটির কমরেডদের অসহায় মানুষের পাশে সর্বশক্তি নিয়ে ঝাপিয়ে পড়ার আহ্বান রাখেন তিনি। সিপিআইএম জেলা দপ্তরে পার্টির জেলা সম্পাদক সলিল আচার্য বলেন আজকের দিনে মে দিবসের গুরুত্ব অপরিসীম গত এক বছরে লকডাউন পরবর্তী সময়ে যেভাবে শ্রমিক কর্মচারীদের শোষণ করা হয়েছে, যেভাবে ছাঁটাই চলছে, ৮ ঘণ্টা কাজের দাবি যেভাবে উপেক্ষিত হয়েছে নিউ নরমাল সিচুয়েশনের নাম করে সেখানে শ্রমিক-কর্মচারীদের পাশে তাদের কাজের সুরক্ষার দাবিতে লড়াইয়ে তারা পাশে পেয়েছে একমাত্র বামপন্থীদের। গত এক বছর ধরে পরিকাঠামো তৈরি না করতে পারায় আজ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মানুষ ছিন্ন বিচ্ছিন্ন। চারিদিকে ভ্যাকসিন অক্সিজেনের হাহাকার এই নতুন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে সর্বশক্তি দিয়ে দাঁড়াচ্ছে রেড ভলেন্টিয়ার্স তাদের এই লড়াইকে আমাদের সকলের আরো সুসংহত করতে হবে। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো কমিউনিস্টদের ঐতিহাসিক দায়িত্ব এবং সেই দায়িত্ব তারা বিভিন্ন সময় যোগ্যতার সাথে পালন করেছেন। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার যেখানে পরিষেবা দিতে ব্যর্থ সেখানে এবারেও মানুষের থেকে অর্থ সংগ্রহ করে আর্ত অসহায় অসুস্থ, পিরীত, মানুষের পাশে আমরা সর্বশক্তি নিয়ে দাঁড়াবো। পুঁজিবাদী সমাজ ব্যবস্থায় শ্রমিক শোষণ বঞ্চনার বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই জারি থাকবে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।