দেশ

প্রবল শীতে কাঁপছে দেশ


সুপর্ণা রায়, চিন্তন নিউজ, ৩ জানুয়ারি: দারুন শীতে কাঁপছে উত্তর ভারত। তার মধ্যে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারনে শুরু হয়েছে প্রবল বৃষ্টি। একে এই প্রচন্ড ঠান্ডা তার উপরে প্রবল বৃষ্টি এই দুইয়ে মিলে সাধারণ জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এই রকম শীতের বৃষ্টি হবে তার পূর্বাভাস আগেই দিয়েছিল দিল্লির আবহাওয়া দফতর। শনিবার থেকেই মিলতে শুরু করেছিল আবহাওয়া দফতরের সতর্কবাণী।

রবিবারের দিল্লির সকাল ছিল কালো মেঘে ঢাকা আর তারপরেই শুরু হয় বজ্রবিদ্যুৎ সহ তুমুল বৃষ্টি। শনিবার থেকেই নয়ডা ও গাজিয়াবাদে বৃষ্টি শুরু তবে রবিবার সকাল থেকেই পুরো রাজধানী জুড়ে বৃষ্টি আরম্ভ হয়েছে। শনিবার আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল যে পুরো উত্তর ভারত, পাঞ্জাব ও হরিয়ানাতে এই বৃষ্টির প্রভাব পড়বে এবং বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হবে।

নতুন করে একটি ঘূর্নাবর্ত সৃষ্টি হয়েছে রাজস্থানের উপর। এর প্রভাবে আগামী কয়েক দিন জম্মু কাশ্মীর, লে – লাদাখেও বৃষ্টি ও তুষারপাত এর সম্ভাবনা রয়েছে। আজ রবিবার পুরো উত্তর ভারত জুড়ে যে বৃষ্টি চলছে আগামী সোমবার সেই বৃষ্টি আরও বাড়বে পাঞ্জাব ও হরিয়ানাতে। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে যে আগামী মঙ্গল ও বুধবার কেরালা ও তামিলনাডুতেও প্রবল বৃষ্টিপাত হবে। আকাশ ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকবে।

পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাব পড়েছে পশ্চিমবঙ্গের উপরেও। রাজ্যে শীতের প্রভাব রয়েছে কোথাও কম আবার কোথাও বেশী। এবারে অদ্ভুত ভাবে কম রয়েছে কৃষ্ণনগরের তাপমাত্রা। যে জেলায় অন্যান্য বছরগুলোতে এই সময়ে তাপমাত্রা আট- নয় ডিগ্রীর মধ্যে থাকে এবার সেই তাপমাত্রা নেমে দাঁড়িয়েছে ৬.৮ ডিগ্রীতে যা আবহাওয়া দফতরের অফিসারদের বেশ অবাক করেছে।

এই যে কোথাও তাপমাত্রা কম আবার কোথাও বেশী, আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে এটা অরোট্রপিকাল পরিস্থিতির জন্য হচ্ছে। কোথাও মাটি তাপমাত্রা ধরে রাখছে আবার কোথাও একটু ছাড় দিচ্ছে। তার জন‌্য এই তাপমাত্রায় হেরফের ঘটছে। তবে এবার হাওয়া অফিসকে সত্যিই অবাক করেছে কৃষ্ণনগরের তাপমাত্রা।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।