জেলা

হাওড়ার অন্দরে ঈশ্বর স্মরণ–


চিন্তন নিউজ-২৬শে সেপ্টেম্বর–সৌমেন বাগ—“অন্তরঙ্গ বিদ্যাসাগর”-এই শিরোনামকে সামনে রেখে পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবার্ষিকী পূর্তি অনুষ্ঠান সংগঠিত হলো ভারতীয় গণনাট্য সংঘ (পঃ ব:),বাউড়িয়া “মশাল” শাখার উদ্দ্যোগে. বাউড়িয়া, ভাষাপাড়ায় বিদ্যাসাগরের ওপর আলোচনা করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কানাইলাল কলেজের অধ্যাপক মাননীয় রূপক জানা মহাশয়; শিক্ষক ও সংগঠনের সম্পাদক সৌমেন বাগ এবং সংগঠনের সভাপতি ও জেলা-নেতৃত্ব দীপক রায়। এর পাশাপাশি সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পীও সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও নেতৃত্ব সুনীল আদক এবং সংগীত- শিল্পী মিঠু ধর। কবিতায় ছিলেন কবি বিমল চন্দ্র সর্দার, দীপক জানা,মণীন্দ্র গাঙ্গুলী,বাবলু সরকার এবং সঞ্চিতা হাজারী। এছাড়াও নৃত্যে ছিল “মশাল”এর ছোটো সদস্যরা….আগামী প্রজন্মরা।

পাশাপাশি,প্রথম প্রজন্মের হাতে বর্ণপরিচয় তুলে দিয়ে আজকের দিনটি পালন করে বাউড়িয়া বিজ্ঞান কেন্দ্র।

চেঙ্গাইলের প্রেমচাঁদ জুট মিল গেটের উল্টো দিকে শান্তি পল্লি। শান্তিপল্লিতে ঢোকার মুখে উঠোন। উঠোনে শনিবার সকাল দশটা থেকে শান্তি পল্লীর বাসিন্দারা দৈহিক দূরত্ব মেনে শিশু সন্তানদের নিয়ে হাজির। বিদ্যাসাগরের প্রতিকৃতি ঘিরে সকলে সমবেত। পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের বাউড়িয়া বিজ্ঞান কেন্দ্রের উদ্যোগে বিদ্যাসাগরের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানানো হয়। তারপরে মাস্ক দেওয়া হয় শিশুদের। বাউড়িয়া বিজ্ঞান কেন্দ্রের পক্ষ থেকে ঈশ্বর প্রণাম অনুষ্ঠানের সমাপ্তিতে চেঙ্গাইলের শান্তি পল্লি স্যানিটাইজ করা হয়। বাউড়িয়ার চক্কাশীর বিবেকানন্দ পল্লিও এদিন স্যানিটাইজ করেন বিজ্ঞান কেন্দ্রের সদস্যরা।
এদিন সন্ধ্যায় জাতীয় শিক্ষানীতির ওপর এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের বাউড়িয়া বিজ্ঞান কেন্দ্রের উদ্যোগে। আলোচনা করেন নরসিংহ দত্ত কলেজের অধ্যাপক ড. কুন্তল চট্টোপাধ্যায়, বিশিষ্ট শিক্ষক শোভন সেন। আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন সংগঠনের পক্ষে শিক্ষিকা অদিতি ভৌমিক ও শিক্ষক ও সংগঠনের সম্পাদক চন্দন দাস।

আশিস কংসবণিকের রিপোর্ট—-ভারতের গনতান্ত্রিক যুব ফেডারেশন বালী জগাছা উত্তর আঞ্চলিক কমিটির অন্তর্গত দূর্গাপুর অভয়নগর ২নং ইউনিটের পক্ষ থেকে বিদ্যাসাগর এর ২০১ তম জন্মদিন উপলক্ষে ১২৫ জন ছাত্র ছাত্রীদের খাতা,জ্যামিতি বক্স ও পেন বিতরন করা হয়।উপস্থিত ছিলেন ডিওয়াইএফআই এর জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য শুভঙ্কর চক্রবর্তী, সোমনাথ গৌতম,সুভাষ দে। এই সভার সভাপতিত্ব করেন রুপক হাজরা।

       হাওড়া বাঁচাও 

সংবাদদাতা সরোজ দাস:- আজ দীর্ঘদিন ধরে হাওড়া কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত করে রেখে হাওড়া কর্রেপোশন এলাকাকে প্রায় মৃতপ্রায় করে রেখেছে এই সরকার , আমাদের হাওড়ার বালিতে করপোরেশন পরিচালিত চ্যারিটেবল ডিস্পেন্সনারী গুলো বন্ধ , বিভিন্ন ওয়ার্ডে নর্দমা নিয়মিত পরিষ্কার হয়না , ডেঙ্গু প্রতিরোধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়ার উদ্যোগ দেখা যায়নি এই ঘুমন্ত প্রশাসনের, এছাড়া কেন্দ্রের কৃষক মারা জনবিরোধী বিলের প্রতিবাদে আজ বালি বেলুড় এরিয়া কমিটির পশ্চিম ১ও ৩ শাখার উদ্যোগে জাঠা মিছিল ওই এলাকার বিভিন্ন স্থানে স্কোয়ার্ড লিফলেট বিলি সহ অর্থসংগ্রহ কর্মসূচি নেওয়া হয় ।।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।