জেলা

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বন্যা পরিস্থিতি


কমলেন্দু রায়: চিন্তন নিউজ:২৯শে সেপ্টেম্বর:- দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমণ্ডি এবং বংশীহারীর মধ্যবর্তী টাঙ্গন নদীর জল বাড়ছে, অন্যদিকে গঙ্গারামপুরের পূর্ণভবা নদীর জলও আজ বেড়ে গেছে এবং কিছু কিছু গ্রাম বন্যার কবলে। জেলা সদর বালুরঘাটের আত্রেয়ী নদীর জল বিপদ সীমার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গতকালের থেকে আজকের অবস্থা আরও ভয়ঙ্কর । জল বেড়ে গিয়েছে।

চকভৃগু অঞ্চলের আখিরাপাড়ার সঙ্গে বেলাইনসিংপাড়ার সংযোগস্থল রাস্তায় এক কোমর জল। বাড়ি-ঘর ডুবে গেছে। ঘরছাড়া বানভাসি মানুষজন এন সি নদীপার হাইস্কুলে আশ্রয় নিয়েছেন প্রায় ২৫-৩০টি পরিবার অন্য দিকে প্রাইমারী বিদ্যালয়েও ১১-১৫টি পরিবার আশ্রয় নিয়েছেন। সরকার থেকে তাঁদেরকে সেভাবে কোনো সাহায্য করা হচ্ছে না বলে বানভাসি মানুষদের অভিযোগ। শুধু মাত্র একদিন রাতে একটু খিচুড়ি দেওয়া হয়েছিল। আখিরাপাড়া হয়ে বেলাইনসিংপাড়ায় যাতায়াতের জন্য একটি ছোট নৌকা দেওয়া হয়েছে, তাও আবার ৫-৬ জনের বেশি উঠাও মুশকিল । ফলে ভোগান্তি বাড়ছে বানভাসি মানুষদের।

এমনই করুণ অবস্থা চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের আখিরাপাড়া বেলাইন সিংপাড়ার মানুষদের । কেউ মা’য়ের ঔষুধ কিনতে আবার কেউ একমুঠো ভাত জ্বালিয়ে খাবার জন্য জ্বালানি কিনতে এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে এক বুক জল ভেঙে চকভৃগু বাজারে আসতে হয়। বানভাসি মানুষদের উদ্ধারের জন্য এবং খাদ্যসামগ্রীর সহ সরকারের যেভাবে তৎপরতার দরকার, সেভাবে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো উদ্যোগ এখনও নেওয়া হয়নি। এনিয়ে বানভাসি মানুষদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে। বানভাসি মানুষদের প্রশ্ন সরকার কোথায় ?পঞ্চায়েত মেম্বার, প্রধান, আমলারাই বা কোথায় ?


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।