জেলা

মুরার‌ইয়ে ধর্ষিতা,আত্মঘাতী কন্যার পরিবারের পাশে সিপিআই(এম) নেত্রী শ্যামলী প্রধান


শ্রীমন্ত মুখার্জি: চিন্তন নিউজ:২২শে সেপ্টেম্বর:- মুরারইয়ে ধর্ষিতা কন্যাশ্রী। সে লজ্জায় অপমানে আত্মহত্যা করেছে। আজ ওই পরিবারের পাশে থাকার বার্তা নিয়ে সিপিআইএম রাজ্য নেত্রী বিধায়িকা শ‍্যামলী প্রধান সহ ছাত্র, যুব, মহিলা নেতৃত্ব ওই তরুণীর বাড়িতে যান। ওই পরিবারের সকলকে আশ্বাস দিয়ে আসেন যে, অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে লড়াই চলবে।

প্রসঙ্গত ধর্ষিতা ছাত্রী বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হয়েছে। এই ঘটনার প্রতিবাদে মুরার‌ই এলাকার সমস্ত মানুষ সোচ্চার হচ্ছেন প্রতিদিন। আজ সারা ভারত গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি ভারতের গণতান্ত্রিক যুব ফেডারেশন ও স্টুডেন্ট ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে এক প্রতিনিধি দল মুর্শিদ পাড়া গ্রামে গিয়ে নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন। মহিলা সমিতির রাজ্য নেত্রী তথা বিধায়িকা শ্যামলী প্রধান, জেলা নেত্রী শ্যামলী রাজবংশী ও ছাত্র-যুব নেতানেত্রীগণ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন। সমস্ত গ্রামবাসী নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে আছেন এবং তারা দোষী ব্যক্তির উপযুক্ত শাস্তি দাবি করেন।

বিধায়িকা শ্যামলী প্রধান তাদের আশ্বাস দেন এই বিষয়ে উপযুক্ত আন্দোলন গড়ে তোলা হবে এবং দোষী ব্যক্তির যথাযথ শাস্তির জন্য পুলিশ প্রশাসন এবং বিধানসভায় উপযুক্ত চাপ সৃষ্টি করা হবে। পরে মুরার‌ইয়ে এক পথসভায় তিনি রাজ্যের বেহাল আইন শৃঙ্খলার প্রসঙ্গ তুলে রাজ্য সরকারের উদাসীনতার কথা তুলে ধরেন। বর্তমানে রাজ্যে ধর্ষণসহ বিভিন্ন নারী নির্যাতন নৈমিত্তিক ব্যাপার। রাজ্যে আইন-শৃংখলার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য তিনি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান জানান। পথসভায় ছাত্র-যুব ও মহিলা সংগঠনের পক্ষ থেকে ঘটনার তীব্র নিন্দা করে দোষী ব্যক্তির উপযুক্ত শাস্তির দাবি করা হয়।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।