বিদেশ

আইভরি কোস্টে শিশুশ্রম,” চকোলেট হার্ট অফ ডার্কনেস”


কিংশুক ভট্টাচার্য:-চিন্তন নিউজ:৩০শে জুলাই :
একবার চোখ ঘুরিয়ে দেখার চেষ্টা একশত বিলিয়ন ডলারের শিল্পের অন্ধকার দিকটা। যেখানে গোলাম হওয়া বাচ্চারা উদয়াস্ত পরিশ্রম করে অত‍্যল্প মজুরীর বিনিময়ে। সেই চকোলেট তৈরী করে খাওয়ার জন্য যে চকলেট সকলেই খেতে ভালোবাসে। আইভরি কোস্ট, সেই দেশ যেখানে বিশ্ব কর্পোরেটের হাতে প্রতি মুহুর্তে লঙ্ঘিত শিশুদের অধিকার, মানবাধিকার আর বিশ্ব পরিবেশ। “চকলেট হার্ট অফ ডার্কনেস” সেই গল্পই শুনিয়েছে।

মানুষ প্রায়শই নিজের প্রিয়জনকে চকোলেট উপহার দিয়ে থাকেন। এই উপহার দিয়ে তাঁর প্রতি মিষ্টি ভালবাসার গভীরতা প্রকাশের চেষ্টা করা হয়। তবে কোকো গাছ থেকে মিষ্টির দোকান হয়ে ভীষণ লোভনীয় চকোলেট কীভাবে হাতে এসে পৌছালো সে সম্পর্কে সাধারণ মানুষ খুব কমই ভাবতে অভ‍্যস্থ।

চকোলেট হার্ট অফ ডার্কনেস এই ছবিটি আইভরি কোস্টে যায়, যা বিশ্বের প্রায় চল্লিশ শতাংশ কোকো উৎপাদন করে। এটি কীভাবে বছর বছর প্রতিবেশী বুর্কিনা ফাসো এবং ঘানা থেকে কয়েক হাজার শিশুকে কোকো ফল সংগ্রহের জন্য পাচার করা হয় এই তদন্তমূলক তথ‍্যচিত্র সেই গল্পই বলেছে।

শিশুরা বিষাক্ত কীটনাশক এবং বিপজ্জনক সরঞ্জামগুলো নিয়ে দীর্ঘ দিন কাজ করে, খুব কম বা কোনও পারিশ্রমিক ছাড়াই তারা এই কাজ করতে বাধ‍্য হয়। আইভরি কোস্টের খামারগুলি এবং সমবায়ীরা এই সংগৃহীত কোকো ফল থেকে কোকো বের করে বিশ্বের বৃহত্তম চকোলেট উৎপাদকদের কাছে সেই কোকো সরবরাহ করে।

শিশুশ্রম ও বনের উপর অংশের এই তদন্তে তথ‍্যচিত্রের নির্মাতা চকোলেট শিল্পের আধিকারিকদের এবং ইউরোপীয় সংসদের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য ইউরোপ ভ্রমণ করেন। প্রতি বছর একশত বিলিয়ন ডলারেরো বেশি ব্যবসার এই শিল্প কেন ভার্চুয়াল দাসত্ব এবং পরিবেশ ধ্বংসে জড়িত? বিশদ তথ‍্য সংগ্রহ করে তৈরী হয় এই তথ‍্য চিত্র ” চকলেট হার্ট অব ডার্কনেস”।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।