জেলা

বীরভূম জেলার খবর


রাহুল চ্যাটার্জি: চিন্তন নিউজ:২৪শে জুলাই:- অস্বাভাবিক বিদ্যুৎ বিল প্রত্যাহার করো, মাসের বিল মাসে দিতে হবে, বেহাল জাতীয় সড়কের অবস্থা, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় কাটমানি ফেরত দাও, চাল চোর সরকারের দুর্নীতি, করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি নিষ্ক্রিয়তা প্রভৃতি মানুষের দাবী নিয়ে মহকুমা শাসকের দপ্তর অভিযান করতে গিয়ে রামপুরহাটে বাম ও কংগ্রেসের নেতৃত্ব গ্রেপ্তার হ’লেন আজ।

এদিন সকাল ১০টাই বাম-কং কর্মীরা পাঁচমাথা মোড়ে সামাজিক দূরত্ব মেনে, পর্যাপ্ত সুরক্ষা নিয়ে এই কর্মসূচীর উদ্যেশ্যে জড়ো হন। সেখানে কিছুটা অতি উৎসাহী হয়েই উপস্থিত বিশাল পুলিশ বাহিনী জমায়েত কারীদের টেনে হিঁচড়ে থানায় গাড়িতে করে তুলে নিয়ে যান। প্রায় আধঘন্টা ধরে বিক্ষোভকারীদের সাথে পুলিশের এই ধস্তাধস্তি চলে। উপস্থিত হন রামপুরহাট থানার আইসি ও রামপুরহাটের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক। পুলিশ জবরদস্তি বাম-কংগ্রেস নেতাদের আটক করে।

হাঁসনের বিধায়ক তথা কংগ্রেস নেতা মিল্টন রশিদ, সিপিআইএম নেতা সজ্ঞীব বর্মন, প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা সিপিআইএম নেতা সঞ্জীব মল্লিক ও ফরওয়ার্ড ব্লকের জেলা সম্পাদক দীপক চ্যাটার্জি, যুব নেতা অমিতাভ সিং সহ কয়েক জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় তারা। পরে ব্যক্তিগত হলফনামা দিয়ে জামিন পেয়েছেন প্রত্যেকেই।।

এদিকে দ্বারকা নদীর জল বাড়ায় ৩০ কিলোমিটার ঘুর পথে যেতে হচ্ছে সাধারন মানুষদের। বীরভূম জেলার মাঝ বরাবর বয়ে যাওয়া এই নদীর জল বেড়ে যাওয়ার কারনে ভেঙে পরেছে আঙ্গারগড়িয়া থেকে গনপুর যাবার মূল রাস্তা। এছাড়াও, বীরভূমের তিলপাড়া ব্যারেজ থেকে ১৫৮০০ কিউসেক ও ম্যাসনজোর থেকে ছাড়া হলো ১৭ হাজার কিউসেক জল। এক নাগাড়ে এভাবে আরো বৃষ্টি হতে থাকলে বন্যার আশঙ্কা করছে সাধারণ মানুষ।

অপরদিকে দীর্ঘদিন ধরে নানা উপায় অবলম্বন করেও ঠেকানো যাচ্ছে না গোষ্ঠী সংক্রমন বা করোনা আক্রান্তের হার। তাই আজ ফের লক ডাউনের সময় সীমা পরিবর্তন করলো বীরভূম জেলা প্রশাসন, ২৬ তারিখ থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত বীরভূমের ৬ টি পুরসভা এলাকায় দুপুর ১২ টা থেকে রাত্রি ১০ টা অবধি চলবে কমপ্লিট লকডাউন। আর ২৪/২৫ তারিখ দুপুর ৩ টে থেকে ভোর ৬ টা অবধি থাকবে কমপ্লিট লকডাউন। এই মর্মে নির্দেশিকা জারি করেছেন জেলা পুলিশ। রাস্তায় বেরোলে মাস্ক ব্যবহার সুনিশ্চিত করতেও চলছে পুলিসি নজরদারী ও ধরপাকড়।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।