জেলা

রেল বেসরকারীকরণের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে বাঁকুড়া রেল স্টেশনে শ্রমিক বিক্ষোভ ও মাইগ্র‍্যান্ট শ্রমিকদের দাবীতে তালডাংড়ায় শ্রমিক বিক্ষোভ।


কিংশুক ভট্টাচার্য: চিন্তন নিউজ:১৭ই জুলাই:—দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে রেলের বেসরকারীকরণ চলবে না, রেল স্টেশন ও যাত্রীবাহী ট্রেনগুলিকে ব্যাক্তি মালিকানায় বেচে দেওয়া চলবে না, শিরোমণি ফার্স্ট প্যাসেঞ্জার, হাওড়া-চক্রধরপুর-সহ কোন প্যাসেঞ্জার ট্রেনকেই এক্সপ্রেস ট্রেনে রূপান্তরিত করা চলবে না, রেল বেসরকারীকরণের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না হলে রেলের চাকা অচল হবে দাবীগুলিতে আজ সকালে মুখর হয়ে উঠলো

বাঁকুড়া রেল স্টেশন চত্বর – সিআইটিইউ, এআইটিইউসি, আইএনটিইউসি, ইউটিইউসি, টিইউসিসি, এআইসিসিটি ইউ, বারো জুলাই কমিটি-সহ কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির ডাকা দেশব্যাপী প্রতিবাদ বিক্ষোভের এই কর্মসূচীতে আজ সামিল হয়েছিলেন অল ইন্ডিয়া লোকো রানিং স্টাফ এসোসিয়েশন (এআইএলআরএসএ) ও বাঁকুড়া জেলা লরী ড্রাইভার্স এন্ড ক্লিনার্স ইউনিয়নের সদস্যবৃন্দ।
বিক্ষোভ সভাতে সভাপতিত্ব করেন সিআইটিইউ’র রাজ্য নেতা তথা বাঁকুড়া জেলার সভাপতি কিংকর পোশাক।

  • বক্তব্য রাখেন প্রতীপ মুখার্জী(সিআইটিইউ), অনাথ মল্ল(টিইউসিসি), গঙ্গা গোস্বামী(ইউটিইউসি), গৌতম গোস্বামী(এআইএলআরএসএ), বাবলু ব্যানার্জী(এআইসিসিটি ইউ), ভাস্কর সিনহা(এআইটিইউসি), সত্য মুখার্জী(লরী ইউনিয়ন) ও অভিষেক বিশ্বাস (আইএনটিইউসি)। – বক্তারা সভা থেকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন মোদী সরকার যদি দেশের সর্ববৃহৎ এই রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে বেসরকারীকরণ করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না করে তাহলে হাজার হাজার মাইল বিস্তৃত রেলপথের ধারে বসবাসকারী শ্রমিক, কৃষক তথা সমাজের সর্বস্তরের মানুষেরা রেলের চাকা জ্যাম করে মোদী সরকারের না কে হ্যাঁ করাতে বাধ্য করবে
  • সভা চলাকালীন বিক্ষোভকারী সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে সাতজনের এক প্রতিনিধিদল ডিআরএম আদ্রা’র উদ্দেশ্যে লিখিত স্মারকলিপি স্টেশন ম্যানেজার, বাঁকুড়াকে পেশ করেন।

তালডাংরায় পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন

দেশের সম্পদ তৈরী, উৎপাদন, পরিষেবা-সহ ভিন রাজ্যে বিভিন্ন কাজে যুক্ত শ্রমিকরাই আজ পরিযায়ী শ্রমিক। দেশের স্বার্থে এই শ্রমশক্তিকে বাঁচিয়ে রাখতেই হবে। – এই তাগিদ থেকেই সিআইটিইউ’র নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে পশ্চিমবঙ্গ মাইগ্র‍্যান্ট লেবার ইউনিয়ন তাঁরা দাবী তুলেছেন প্রতিটি পরিযায়ী শ্রমিককে আগামী ৬মাস সাতহাজার পাঁচশত টাকা ক‍রে দিতে হবে, পরিযায়ী শ্রমিক সহ প্রতিটি গরীব মানুষকে আগামী ছয় মাস প্রতি মাসে রেশনের মাধ্যমে বিনা মূল্যে দশ কেজি করে খাদ্যশস্য দিতে হবে, যোগ্যতা অনুযায়ী প্রতিটি পরিযায়ী শ্রমিকের রাজ্যেই কাজের ব্যবস্থা রাজ্য সরকারকে করতে হবে – এই দাবীগুলিতে বাঁকুড়া জেলার তালডাংরায় আজ মাইগ্রেন্ট ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের ডাকে সাত শতাধিক পরিযায়ী শ্রমিক তুমুল বিক্ষোভ, মিছিল ও ডেপুটেশনে সামিল হলেন। ইউনিয়নের রাজ্যের সহ-সম্পাদক উজ্জ্বল সরকার, অর্দ্ধেন্দু বিশ্বাস, পরিযায়ী শ্রমিক শ্যামল দাস, মাধব দাস-সহ ছজনের প্রতিনিধি দল বিডিও’র সাথে এক ডেপুটেশনে মিলিত হন। বিডিও দাবীগুলির যৌক্তিকতা স্বীকার করে তা উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের কাছে প্রেরণ করার এবং পরিযায়ী শ্রমিকদের একশত দিনের কাজে যুক্ত করা হবে বলে আশ্বাস দেন।
ডেপুটেশন শেষে বিক্ষোভকারীরা কৃষক নেতা সুনীল হাঁসদার সভাপতিত্বে পাঁচমুড়া মোড়ে মিলিত হন এক প্রতিবাদী সমাবেশে – সেখানে বক্তব্য রাখেন সিআইটিইউ’র জেলার সহ-সভাপতি প্রতীপ মুখার্জী, তালডাংরা থানার পাইকা গ্রাম থেকে ওড়িষ্যার কটকে রামকো সিমেন্টে কাজ করতে যাওয়া পরিযায়ী শ্রমিক মনোজিৎ শূর, ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের জেলা সভাপতি মনোরঞ্জন পাত্র ও সংগঠনের রাজ্যের সহ-সম্পাদক তথা সিআইটিইউ নেতা উজ্জ্বল সরকার। বক্তারা দাবীগুলি পূরণ না করা হলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলে সরকারকে দাবীপূরণ বাধ্য করতে সর্বস্তরের শ্রমজীবীদের প্রতি এগিয়ে আসার আহবান জানান। – এই কর্মসূচীতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিআইটিইউ’র রাজ্য নেতা তথা জেলা সভাপতি কিংকর পোশাক।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।