বিদেশ

পাকিস্তানের সীমান্তবর্তী শহর চমনে ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণ।


কিংশুক ভট্টাচার্য;-চিন্তন নিউজ:- ১১ আগষ্ট:- পাকিস্তান- আফগান সীমান্তের নিকটবর্তী বেলুচিস্তান প্রদেশের শহরে এক মারাত্মক বিস্ফোরণের ঘটনার খবর পাওয়া গিয়েছে।ঘটনার পরে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা রাজ্জাক চীমা জানিয়েছেন, সীমান্তবর্তী শহর চমনে মাদক চোরা চালান প্রতিরোধে নিয়োজিত বিশেষ বাহিনীকে লক্ষ্য করে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয় । এই বিস্ফোরণে কমপক্ষে ছয় জন নিহত এবং অন্ততপক্ষে দশ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।আহতদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গিয়েছে।”

সোমবার যে বিস্ফোরণটি ঘটানো হয় সেটি একটি মোটরসাইকেলে লাগানো বোমা। এই মোটরসাইকেল বোমাটি ব্যবহার করে আফগানিস্তানের সীমান্তবর্তী চমন শহরের প্রাণকেন্দ্রে বিস্ফোরন ঘটানো হয় বলে পাকিস্তান সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে।

সংবাদ সূত্রে খবর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বোমা বিস্ফোরণের তীব্র নিন্দা করে আহতদের দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করেছেন ।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এজাজ শাহ এক বিবৃতিতে বলেছেন , “জনগণের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ানোর লক্ষ্যে এই বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়”

এই অঞ্চলটি চীন – পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোর নামে পরিচিত।এই প্রকল্পে প্রায় আট বিলিয়ন ডলার চীন বিনিয়োগ করেছে।। সুদূর পশ্চিম জিনজিয়াং অঞ্চল এবং বেলুচিস্তানে অবস্থিত পাকিস্তানের গওয়াদার বন্দরের মধ্যে পরিকাঠামো, বিদ্যুৎ ও পরিবহন যোগাযোগের উন্নতির কাজ চলছে।

কোনও গোষ্ঠী পরবর্তী সময়ে এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে বৃহত্তর স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে জাতিগতভাবে বালুচি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা বছরের পর বছর ধরে বিদ্রোহ চালিয়ে আসছে। বেশ কিছু দিন যাবৎ এই প্রদেশটি সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্ব এবং সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলির দ্বারা সহিংস কার্যকলাপের ফলে প্রবলভাবে উপদ্রুত।

বেলুচিস্তান প্রদেশে সাম্প্রতিক সময়কালে এই ধরনের সহিংস সন্ত্রাসবাদী হামলা উল্লেখযোগ‍্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। সন্ত্রাসীরা এই সময়েই একটি বিলাসবহুল হোটেল, সামরিক বাহিনী এবং সংখ্যালঘু শিয়া সম্প্রদায়ের সদস্যদের উপর আক্রমণ নামিয়ে এনেছে।

পাকিস্তানের এই অংশ খনিজ সমৃদ্ধ প্রদেশ, যা ইরান ও আফগান সীমান্তবর্তী পাকিস্তানের চারটি প্রদেশের মধ্যে বৃহত্তম। বালুচিস্তান প্রদেশের প্রায় সত্তর লক্ষ বাসিন্দা দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করছেন যে তারা এর গ্যাস ও খনিজ সম্পদের ন্যায্য অংশ পান না।

সুরক্ষা বাহিনী এবং পুলিশ ওই অঞ্চলটিকে ঘিরে রেখেছে । এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন বেশ কয়েকটি দোকান ও যানবাহন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।